test
Monday, June 24, 2024
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img
HomePhotographyরাত পোহালে যুক্তরাজ্যে কাউন্সিল নির্বাচন, কারা হাসবেন শেষ হাসি

রাত পোহালে যুক্তরাজ্যে কাউন্সিল নির্বাচন, কারা হাসবেন শেষ হাসি

খালেদ মাসুদ রনি:
আর মাত্র কয়েক ঘন্টা পরে বৃটেনের লন্ডন,মানচেষ্টার,লিডস,বামিংহাম,ওয়েলস ও স্কল্যান্ডে অনুষ্টিত হতে যাচ্ছে বহুপ্রত্যাশিত কাউন্সিলর নির্বাচন।নির্বাচনকে সামনে রেখে শেষ মুহুর্তে প্রচারনায় ব্যস্থ রয়েছেন মেয়র ও কাউন্সিলার প্রার্থীরা।বৈরী আবহাওয়া উপেক্ষা করে ঘুরছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে।দিচ্ছেন নানা প্রতিশ্রুতি।নির্বাচনকে ঘিরে সরগরম এখন শহর থেকে শুরু করে পাড়া-মহল্লা।বিশেষ করে মুসলিম প্রার্থীরা রোজা থাকায় তাদের বেশ কষ্ট করতে হয়েছে।তবে এবারের নির্বাচনে বাংলাদেশী অধ্যুষিত টাওয়ার হ্যামলেটসে নির্বাচন নিয়ে মানুষের একটু আগ্রহ বেশী।কারণ এখানে দুই বাংলাদেশীসহ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৭ জন মেয়র প্রার্থী।এছাড়াও ৪৫ পদের বিপরিতে বিভিন্ন দলের প্রায় ২১৯ জন প্রার্থী রয়েছেন।এর মধ্যে শুধু বাংলাদেশী রয়েছেন প্রায় শতাধিকের উপরে।এছাড়া বিভিন্ন দল থেকে ১০ জন প্রার্থী অন্য বারার বাসিন্দা বলে জানা গেছে।৫ এপ্রিল প্রকাশিত চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা অনুযায়ী মেয়র পদের ৭ জন প্রার্থী হলেন জন বিগস(লেবার পার্র্টি),লুৎফুররহমান(এসপায়ার),এ্যালিয়েট ওয়েভার্স(কনজারভেটিভ), রাবিনা খান(লিবডেম), এন্ড্রু উড(স্বতন্ত্র)পামেলা এ্যান হোমস(স্বতন্ত্র)এবং হোগো পিয়ার(ট্রেড ইউনিয়নিস্ট এন্ড সোশালিস্ট কোয়ালিশন)।অন্যদিকে মেয়র প্রার্থীদের মধ্যে ৩ জন কাউন্সিলার পদেও লড়ছেন।এরা হলেন– লিবারেল ডেমোক্র্যাট(লিবডেম)দলের রাবিনা খান, কনজারভেটিবের এ্যালিয়েট ওয়েভার্স এবং ট্রেড ইউনিয়নিস্ট এন্ড সোশালিস্ট কোয়ালিশনের হোগো পিয়ার্স।

লন্ডন টাওয়ার হ্যামলেটস বারা ২০টি ওয়ার্ড নিয়ে ঘটিত।এখানে মোট কাউন্সিলার পদ ৪৫টি।বর্তমান ক্ষমতাশীন দল কনজারভেটিব,লেবার এবং লিবডেম সবগুলো পদেই কাউন্সিলার প্রার্থী মনোনয়ন দিয়েছে।এসপায়ার ৪৪ এবং গ্রীণ পার্টি ৩৬টি কাউন্সিলার পদে প্রার্থী দিয়েছে।আর অন্যান্য দল থেকে প্রার্থী হয়েছেন ৪ জন।দলগুলোর মধ্যে একমাত্র এসপায়ার পার্টির সকল প্রার্থীই বাঙালি।টাওয়ার হ্যামলেটসের বাইরের বাসিন্দাদের মধ্যে ৮ জন এসপায়ার, ১ জন গ্রিণ এবং ১ জন কনজারভেটিভ দলের প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে লড়ছেন।এসপায়ার দলের এই ৮ জন প্রার্থী হলেন বেথনাল গ্রীণ ইস্ট ওয়ার্ডে সৈয়দ হাসান আব্দুল্লাহ (হেরিঙ্গে) ও নুরুল গাফফার(রেডব্রিজ), ব্রোমলি নর্থ ওয়ার্ডে সাইফ উদ্দিন খালেদ (বার্নেট), লাইম হাউজ ওয়ার্ডে ঝর্ণা বেগম(বার্কিং এন্ড ডেগেনহাম), সেন্ট ডান্সটন্স ওয়ার্ডে ব্যারিস্টার নাজির আহমদ (নিউহাম), স্টেপনী গ্রীণ ওয়ার্ডে সোহেল মালিক(ওয়ালথাম ফরেস্ট) এবং ওয়েভার্স ওয়ার্ডে কবির আহমদ (রেডব্রিজ) ও ফজলে এলাহী (বার্কিং এন্ড ডেগেনহাম)।আর কনজারভেটিভ দলের ১ জন হলে হোয়াইটচ্যাপেল ওয়ার্ডের প্রার্থী রিয়াজ মোস্তফা খান(কনজারভেটিব, বার্কিং এন্ড ডেগেনহাম)এবং গ্রীণ পার্টির ১ জন হলে প্রার্থী একই ওয়ার্ডের মোহাম্মদ শাহরার আলী(হ্যাভারিং।

হোয়াইটচ্যাপেল ওয়ার্ডের ‘রিসারেকশন ইয়ং পিপল ইনশাআল্লাহ’ দলের একমাত্র প্রার্থী শাহেদ আলী।এসপায়ার পার্টি সবগুলো ওয়ার্ডে কাউন্সিলার প্রার্থী দিলেও একমাত্র এই হোয়াইটচ্যাপেল ওয়ার্ডে তিনজন প্রার্থীর জায়গায় দুজন প্রার্থী দিয়েছে।অপদিকে এসপায়ারের প্রার্থী ব্যারিস্টার নাজির আহমদ গত মেয়াদে নিউহামের লেবার দলীয় কাউন্সিলার ছিলেন।তিনি সেখানে স্পীকার হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন।এন্টিসেমিটিজমের অভিযোগে নিউহাম লেবার পার্টি তাকে সাসপেন্ড করলে তিনি টাওয়ার হ্যামলেটসের এসপায়ারে যোগ দেন।সাবেক এই স্পীকার নাজির আহমদ সেন্ট ডান্সটন্স ওয়ার্ডে এসপায়ার দলের প্রার্থী হয়েছেন।আগামী ৫ মে নির্বাচনে ভোটাররা কাকে ভোট দিবেন এবং কে হবেন মেয়র বা কাউন্সিলার এ নিয়ে বারার মানুষের আগ্রহের কমতি নেই।তবে শেষ পর্যন্ত বর্তমান মেয়র ও সাবেক মেয়রের মধ্যে লড়াই হওয়ার সম্ভাবনা বেশী রয়েছে।তাদের নিয়েই এখন আলোচনা বেশী।তবে শেষ পর্যন্ত লন্ডন টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিল নির্বাচন কে হাসবেন বিজয়ের হাসি তা দেখতে আরো আরো দুই দিন অপেক্ষা করতে হবে।কারণ বৃহস্পতিবার ভোট অনুষ্টিত হলেও ফল প্রকাশ হতে শুক্রবার হয়ে যাবে।

অন্যদিকে বর্তমান মেয়র ও প্রার্থী জন বিগস বাসিন্দাদের উদ্দেস্য খোলা চিঠি লিখেছেন।চিঠিতে তিনি বলেছেন আমি এ বারায় ৩০ বছর ধরে নির্বাচিত প্রতিনিধি হিসাবে কাজ করছি।এটি আমার জন্য অন্যন্য সম্মান।টাওয়ার হ্যামলেটস রাজধানী লন্ডনের শ্রেষ্ট একটি বারা।এই বারার জন্য আমি গর্বিত।আমরা জাতি,ধর্মবর্ণ নির্বিশেষে আমরা কাধেঁ কাধেঁ রেখে চলিতাই সামনে এগুবেন না বিশৃংখলায় ফিরে যাবেন সিন্ধান্ত আপনার।তিনি বলেন,উন্নয়নের গতিধারা অব্যাহত রাখতে দরকার সিরিয়াস নেতৃত্ব।আমার দায়ীত্ব কালে বড় একটা সময় কেটেছে সাবেক মেয়রের ফেলে যাওয়া বিশৃংখলা দূর করতে এবং করোনা মোকাবেলা করতে।

একই সাথে টাওয়ার হ্যামলেটস নির্বাচনে লুৎফুর রহমান ১২০ টি প্রতিশ্রুতি`র মেনুফেস্টো প্রকাশ করেছেন।৭ বছর বারার নেতৃত্বদানকারী এ মেয়র বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ২৬ পৃষ্টার এই ম্যানুফেস্টোতে তিনি বারার মানুষের সমস্যা লাগবে কাজ করার প্রত্যায় ব্যক্ত করেছেন।৮ টি পয়েন্টে প্রায় ১২০টি প্রতিশ্রুতি দিয়ে লুৎফর রহমান বলেছেন,টাওয়ার হ্যামলেটসের পুনর্গঠন এবং ভবিষ্যত নির্মানে আপানারা সুবিচার করুন,এটি তার উচ্চ আকাংখা আর আত্মবিশ্বাসের দলিল।তিনি বলেন,আমারা যে উন্নতি ও পরিবর্তনের ধারা শুরু করেছিলাম, তা কিভাবে বন্ধ হয়েছে, আপনারা ভালো জানেন।আর তাই আগামী ৫ মে আপনারা চুড়ান্ত বিচার করবেন।আপনারা সঠিক রায় দিয়ে সেই উন্নয়ন কর্মসূচী আবারো ফিরিয়ে আনতে পারেন।

অপর প্রার্থী রাবিনা খান বলেছেন খোলা চিঠিতে বলেছেন,আমাদের দরকার আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল একজন মেয়রেরতিনি বলেছেন আমি আপনাদের কখনও ছেড়ে যাইনি।তিনি বলেন কমিটির জন্য লড়াই কেরতে এখানে থেকেছি।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments