Wednesday, July 24, 2024
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img
Homeলিডনিউজজামালগঞ্জের বিদায়ী ইউএনও উপজেলা ও ইউপি চেয়ারম্যানদের বিরুদ্ধে কুরুচিপুর্ণ বক্তব্য রাখায় চেয়ারম্যানদের...

জামালগঞ্জের বিদায়ী ইউএনও উপজেলা ও ইউপি চেয়ারম্যানদের বিরুদ্ধে কুরুচিপুর্ণ বক্তব্য রাখায় চেয়ারম্যানদের সংবাদ সম্মেলন

হাবিব রহমান, সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জ উপজেলার সদ্য বিদায়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো মাসুদ রানা উপজেলা চেয়ারম্যান ও ৬ ইউনিয়ন চেয়ারম্যানদের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য রাখায় ইউএনও’র বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেছেন উপজেলার পাঁচ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানসহ উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান।

শুক্রবার বিকেলে জামালগঞ্জ উপজেলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে এই সংবাদ সম্মেলন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এসোসিয়েশনের জামালগঞ্জ সভাপতি ও ফেনারবাঁক ইউপি চেয়ারম্যান কাজল চন্দ্র তালুকদার।

তিনি তার বক্তব্যে বলেন, সম্প্রতি মার্ক মিডিয়া নামে একটি ফেসবুক পেইজ থেকে একটি অডিও বার্তা প্রকাশ হয়েছে। যেখানে মোবাইলে অপর প্রান্তের ব্যক্তির সাথে ইউএনও মাসুদ রানাকে বলতে শুনা যায়, আমি সিলেট চা বাগানে চাকরি করি, শেখ হাসিনা পল্লীর জন্য ভূমিহীনদের সনদ প্রদান করিনি। এছাড়াও নিয়মিত অফিস করিনা। অথচ তিনি নিজেই গত এপ্রিলের ২ তারিখ জেলা প্রশাসক বরাবর শেখ হাসিনা পল্লী সংক্রান্ত বিষয়ে আমি নিয়মিত অফিস করি ও যাচাই-বাছাই করে শেখ হাসিনা পল্লীর জন্য ভূমিহীনদের সনদ দিয়েছি বলে একটি প্রত্যয়ন প্রদান করেছেন। একজন ইউএনও সরকারের গুরুত্বপূর্ণ একটি পদে আসীন হয়ে একেক সময় একেক কথা বলে জনমনে বিভ্রান্তি ছড়ানো চরম অন্যায় ও অপরাধ। এই ধরনের বক্তব্য সম্পুর্ন মিথ্যা ও বানোয়াট। আমরা তার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

সাচনা বাজার ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মাসক মিয়া তার বক্তব্যে বলেন, আমার উপর অর্পিত সরকারের দেয়া দায়িত্ব শতভাগ পালন করার চেষ্টা করি। আমার ইউনিয়নে সরকারিভাবে একটি গুচ্ছগ্রাম অনুমোদন হয়েছে। যার বরাদ্দ ১৬০ টন চাল। আমি এই প্রজেক্টের মাটি ফেলার নব্বই শতাংশ কাজ শেষ করে ফেলেছি। অথচ একটি টাকাও উত্তোলন করিনি। কিন্তু তিনি আমার বিরুদ্ধে ৮০ লাখ টাকার একটি অভিযোগ দিয়েছে। যা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট। বরং তিনি এই কাজ তার ভগ্নিপতি দিয়ে করাতে চেয়েছিলো, আমি দেইনি বলেই তিনি আমার বিরুদ্ধে এই ধরনের মিথ্যা কথা তুলেছে। এতে আমার সম্মানহানি হয়েছে। আমি এটার তীব্র নিন্দা ও বিচার চাই।

এদিকে ভীমখালী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আখতারুজ্জামান তালুকদার তার বক্তব্যে বলেন, ইউএনও মাসুদ রানা আমাদের বিরুদ্ধে যে বক্তব্য দিয়েছেন তা সম্পূর্ণ মিথ্যা। এবং তিনি জামালগঞ্জ -সুনামগঞ্জ রাস্তার সংস্কার কাজ আমাদের ৬ ইউনিয়ন পরিষদের বরাদ্দ থেকে টাকা নিয়ে সাবেক প্রকৌশলী আঃ মালেককে নিয়ে প্রজেক্ট তৈরি করে তৃতীয় পক্ষ দিয়ে নিম্নমানের কাজ করেছেন। এবং অনেক টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

বেহেলী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানসুব্রত সামন্ত সরকার তার বক্তব্যে বলেন, সম্প্রতি জামালগঞ্জ উপজেলা ও ইউপি চেয়ারম্যানদের বিরুদ্ধে যে অডিও বার্তাটি প্রকাশ হয়েছে। তাতে সদ্য বিদায়ী ইউএনও মাসুদ রানা কর্তৃক যে কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য প্রদান করেছেন তার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। এছাড়াও বেহেলী বাজারের উত্তর পাড়ে নির্মিত নতুন বাজারটির ব্যাপারে তিনি যা বলেছেন তা সম্পূর্ণ মিথ্যা। আমি শুধু প্রকৃত ব্যবসায়ীদেরকে বাজার ভীট বন্দোবস্ত দিতে অনুরোধ করেছিলাম। কিন্তু তিনি অদুর পিন্ডি বুদুর ঘাড়ে চাপানোর চেষ্টা করছে।

জামালগঞ্জ উত্তর ইউপি চেয়ারম্যান মো হানিফ মিয়া বলেন, আমার ইউনিয়নের কামিনীপুর গ্রামে একটি গুচ্ছ গ্রাম অনুমোদন হয়েছে। এবং সেখানে ১০৫ টন চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। এবং সেখানে মাটি ফেলতে হবে ৫ লাখ স্কয়ার ফুট। তিনি নিজে এই প্রকল্পের কাজ উদ্বোধন করেছেন। আমি নব্বই হাজার ফুট মাটি ফেলার পর তিনি আমাকে বললেন তার ভগ্নিপতিকে প্রতি ফুটে ২ টাকা করে দিতে হবে। আমি দিতে অস্বীকৃতি জানালে তিনি কাজ বন্ধ করে রাখেন।

এছাড়াও উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান গোলাম জিলানী আফিন্দী রাজু বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেন, একজন ইউএনও উপজেলার সকল জনপ্রতিনিধিদের বিরুদ্ধে এভাবে কথা বলতে পারেন না। যা সম্পুর্ন মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। আমি এর তীব্র নিন্দা জানাই ও বিচাই চাই।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments