Saturday, July 20, 2024
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img
Homeজাতীয়মৃত্যুপুরী লিবিয়া: ত্রাণ ও ওষুধ নিয়ে উড়ল বাংলাদেশ বিমান বাহিনী

মৃত্যুপুরী লিবিয়া: ত্রাণ ও ওষুধ নিয়ে উড়ল বাংলাদেশ বিমান বাহিনী

মৃত্যুপুরী লিবিয়ার পাশে দাঁড়াল বাংলাদেশ। ঘূর্ণিঝড় ড্যানিয়েল ও বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত লিবিয়ার মানুষের জন্য প্রয়োজনীয় ত্রাণ সামগ্রী ও ওষুধ নিয়ে রওনা হয়েছে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর পরিবহন বিমান ‘সি ১৩০ জে’।

গতকাল (বৃহস্পতিবার) রাত ৮টার দিকে লিবিয়ার উদ্দেশে যাত্রা করে বিমানটি।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর)।
এর আগে, সহকারী বিমান বাহিনী প্রধান (পরিচালন) এয়ার ভাইস মার্শাল এ এইচ এম ফজলুল হক বিমানটির লিবিয়ার উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগ উপলক্ষে ব্রিফ করেন। এ সময়ে বাংলাদেশে নিযুক্ত লিবিয়ার রাষ্ট্রদূত আব্দুলমুতালিব এসএম সুলাইমান উপস্থিত ছিলেন।

আইএসপিআর জানায়, পরিবহন বিমানে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় থেকে ত্রাণ সামগ্রী হিসেবে প্রয়োজনীয় শুকনা খাবার, পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট এবং জরুরি জীবনরক্ষাকারী ওষুধ পাঠানো হয়েছে।

এছাড়া সেনাবাহিনী থেকে প্রয়োজনীয় ওষুধ ও অন্যান্য চিকিৎসা সামগ্রী উল্লিখিত বিমানে লিবিয়াতে পাঠানো হচ্ছে।

এর আগে (বৃহস্পতিবার বিকালে সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার লেফটেন্যান্ট জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান লিবিয়ায় ঘূর্ণিঝড় ও বন্যায় বাংলাদেশ কর্তৃক চিকিৎসা ও অন্যান্য সামগ্রীর লোডিং কার্যক্রম পরিদর্শন করেন।

আইএসপিআর আরও জানায়, গত ১০ সেপ্টেম্বর ঘূর্ণিঝড় ও বন্যায় উত্তর আফ্রিকার দেশ লিবিয়ার পূর্বাঞ্চলে ব্যাপক প্রাণহানি, বিভিন্ন স্থাপনার ক্ষতিসহ মানবিক বিপর্যয়ের সৃষ্টি হয়। ঝড়ের আঘাতে এবং বন্যায় ২০ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এছাড়া হাজার-হাজার মানুষ নিখোঁজ রয়েছেন।

বিশ্লেষকদের আশঙ্কা, বন্যার পর দেরনা শহর ভবিষ্যতের জন্য আর বাসযোগ্য থাকবে না। শহরটির অন্তত ৮০ হাজার মানুষ বাস্তুচ্যুত হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর পরিবহন বিমানটি বাংলাদেশে ফেরার কথা রয়েছে।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments