Thursday, July 18, 2024
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img
Homeআন্তর্জাতিককংগ্রেসের সদস্যরা দাঁড়িয়ে জেলেনস্কিকে সম্মান জানালেন

কংগ্রেসের সদস্যরা দাঁড়িয়ে জেলেনস্কিকে সম্মান জানালেন

মার্কিন কংগ্রেসে দেওয়া এক ভাষণে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি রুশ আগ্রাসনের বিরুদ্ধে তার দেশের জনগণ এবং সৈন্যদের সাহসী লড়াইয়ের কথা তুলে ধরে বলেছেন, ‘আমরা এক সেকেন্ডের জন্যও হাল ছেড়ে দেওয়ার কথা ভাবিনি।’ তিনি বলেন, রাজধানী কিয়েভে প্রতিদিন ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালাচ্ছে রুশ দখলদাররা। কিন্তু তারপরও আমরা হাল ছেড়ে দেওয়ার কথা ভাবতে পারিনি।

জেলনস্কি বলেন, ইউক্রেন দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর সবচেয়ে ভয়াবহ যুদ্ধের মুখোমুখি হয়েছে এবং গত আট বছর ধরেই ইউক্রেন রাশিয়ার আগ্রাসন প্রতিহত করে আসছে। বুধবার স্থানীয় সময় সকালে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে মার্কিন কংগ্রেসে ভাষণ প্রদান করেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট।

ভাষণে ইউক্রেনে রাশিয়ার চলমান আগ্রাসনের বিভিন্ন দিক নিয়ে কথা বলেন জেলেনস্কি। এ সময় তিনি আবারও ইউক্রেনে ‘নো ফ্লাই জোন’ ঘোষণা এবং রাশিয়ার বিরুদ্ধে আরও কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানান। তিনি প্রশ্ন করেন, আমাদের এই চাওয়া কি খুব বেশিকিছু?

ভাষণের শুরুতে কংগ্রেসের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কিকে আইনপ্রণেতাদের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেন। একইসঙ্গে তিনি জেলেনস্কির উদ্দেশে বলেন, ‘‘সাহসী নেতৃত্বের জন্য আপনার প্রতি কংগ্রেসের সহকর্মী সদস্যদের ‘মহান শ্রদ্ধা ও প্রশংসা’ রয়েছে।’’ এসময় পর্দার সামনে বসে থাকা কংগ্রেসের সদস্যরা উঠে দাঁড়িয়ে জেলেনস্কিকে সম্মান জানান।

এসময় রাশিয়ার আগ্রাসন থেকে দেশের জনগণকে রক্ষা করার জন্য আমেরিকান আইন প্রণেতাদের আরও কিছু করার আহ্বান জানান ভলোদিমির জেলেনস্কি। তিনি মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে বিশ্বের ‘শান্তির নেতা’ হওয়ার অনুরোধ জানান।

ভাষণ দেওয়ার সময় ইউক্রেনে মানুষের মৃত্যু ও রাশিয়ানদের দ্বারা ধ্বংসযজ্ঞের একটি ভিডিও প্রদর্শন করেন জেলেনস্কি। এই ভিডিও দেখিয়ে কংগ্রেসের সদস্যদের প্রতি তিনি বলেন, ‘দেখুন, ইউক্রেনের আকাশকে হাজার হাজার মানুষের মৃত্যুর উৎস বানিয়েছে রাশিয়া।’ ভিডিও দেখানো শেষে ইউক্রেনের আকাশ বন্ধ করে দেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

ভাষণের শেষে বাইডেনের কাছে ইংরেজিতে সরাসরি আবেদন জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমি আশা করি, আপনি বিশ্বের নেতা হবেন। বিশ্বের নেতা হওয়া মানে শান্তির নেতা হওয়া।’ এর আগেও কয়েকবার ইউক্রেনে ‘নো ফ্লাই জোন’ ঘোষণা করতে পশ্চিমাদের প্রতি জেলেনস্কি আহ্বান জানিয়েছেন। তবে ন্যাটো, জো বাইডেন এবং যুক্তরাষ্ট্রের অনেক আইনপ্রণেতা তা প্রত্যাখ্যান করেছেন। কারণ হিসেবে তারা বলেন, ইউক্রেনে নো ফ্লাই জোন ঘোষণা করা হলে তা পারমাণবিক অস্ত্রধারী রাশিয়ার সাথে সরাসরি পশ্চিমের সংঘাত সৃষ্টি করবে। এটি ৩য় বিশ্বযুদ্ধের কারণও হতে পারে।

এছাড়া হোয়াইট হাউস এখন পর্যন্ত রাশিয়ার তৈরি মিগ যুদ্ধবিমানগুলো ইউক্রেনে পাঠানোর প্রস্তাবেও সমর্থন জানায়নি। যদিও কংগ্রেসের এ প্রস্তাবের পক্ষে কিছু আইনপ্রণেতার সমর্থন রয়েছে।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -spot_img

Most Popular

Recent Comments