Wednesday, June 12, 2024
spot_imgspot_imgspot_imgspot_img
Home Blog

চট্টগ্রামের চকবাজারে ছাত্রলীগ-বিএনপি সংঘর্ষ

চট্টগ্রাম নগরের চকবাজার থানা এলাকায় ছাত্রলীগের সঙ্গে বিএনপি নেতাকর্মীদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

বুধবার (১৪ জুন) দুপুর সাড়ে ৩টার দিকে চট্টগ্রাম কলেজ এবং সরকারি হাজী মুহাম্মদ মহসিন কলেজের প্রধান গেটের মাঝামাঝি সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

এসময় বিএনপির বহরে থাকা কয়েকটি বাস ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। কিছুক্ষণ উভয় পক্ষের মধ্যে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ এবং ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া চলে।

পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের কয়েকজন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

জানা গেছে, বুধবার দুপুর থেকে নগরের কাজির দেউরি মোড়ে বিএনপির অঙ্গ-সংগঠন যুবদল, ছাত্রদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলের উদ্যোগে ‘তারুণ্যের সমাবেশ’ চলমান রয়েছে।

সমাবেশে চট্টগ্রাম মহানগর, আশেপাশের জেলা-উপজেলা থেকে নেতাকর্মীরা মিছিল সহকারে যোগ দিতে থাকেন। এসময় গাড়িবহরসহ একটি মিছিল চট্টগ্রাম কলে

জ এলাকা দিয়ে যাচ্ছিল। মিছিলটি কলেজের প্রধান ফটক এলাকায় পৌঁছালে সংঘর্ষের এ ঘটনাটি ঘটে। চট্টগ্রাম কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মাহমুদুল করিম ঢাকা পোস্টকে বলেন, বিএনপির মিছিল থেকে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে আপত্তিকর স্লোগান দেওয়া হচ্ছিল। তাই ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা তাতে বাঁধা দিয়েছেন। এরপর তারা ছাত্রলীগের ওপর হামলা চালান।

ঈদযাত্রা নির্বিঘ্ন ও রাজধানীর পশুর হাটের নজরদারি করছে পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক: আর চারদিন পেরোলেই মুসলমানদের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আজহা। ঈদকে কেন্দ্র করে নাড়ির টানে এরই মধ্যে ঢাকা ছাড়তে শুরু করেছে মানুষ। ঢাকা দুই সিটিতে বসেছে ২২টি পশুর হাট। এসবের নিরাপত্তা দিতে এরই মধ্যে সক্রিয়ভাবে কাজ শুরু করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিমএমপি) সদস্যরা।

সম্প্রতি রাজধানী ও আশপাশের এলাকায় সুষ্ঠু ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা এবং ঘরমুখো মানুষের ঈদ যাত্রা নির্বিঘ্ন করতে বিভিন্ন স্টেকহোল্ডারদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা করেছে ডিএমপির ট্রাফিক বিভাগ। রাজধানীর পশুর হাটের সার্বিক নিরাপত্তা ও ঈদযাত্রার বিষয়ে জানতে চাইলে বুধবার মিরপুর ডিভিশনের এডিসি (প্রশাসন) মাসুক মিয়া জানান, গাবতলী বাসস্ট্যান্ড থেকে ঢাকা বহির্গামী যাত্রীরা নির্বিঘ্নে দেশের নানা প্রান্তে যেতে যাতে কোনো ধরনের হয়রানির শিকার না হন, সে লক্ষ্যে মিরপুর ডিভিশনের পুলিশ নিরলসভাবে কাজ করছে। ঈদযাত্রা নির্বিঘ্ন করতে মিরপুরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে চেকপোস্ট বসানো হয়েছে।

তিনি বলেন, বিভিন্ন গরুর হাটে কোরবানির গরু বেচাকেনা নিরাপদ করতে প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এ লক্ষ্যে বিভিন্ন অংশীজনদের নিয়ে নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয়ে হোয়াটস অ্যাপে গ্রুপ খোলা হয়েছে। ব্যাংক, বীমা ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মকর্তাদের সঙ্গেও মতবিনিময় করা হয়েছে।

এছাড়া যেসব নাগরিকরা গ্রামের বাড়িতে ঈদ উদযাপন করতে যাবেন, তাদের করণীয় ও বর্জনীয় সংক্রান্ত লিফলেট বিতরণ করা হয়েছে। নাগরিকদের যেকোনো সমস্যায় লোকাল থানায় কিংবা ৯৯৯ জানানোর অনুরোধও করেন এডিসি মাসুক মিয়া।

তিনি বলেন, মিরপুর জোনে ৩ টি গরুর হাট আছে। গরুর হাটগুলোর মধ্যে একটি স্থায়ী, আর দুটি হচ্ছে অস্থায়ী। গাবতলী গরুর হাট স্থায়ী হাট। আর অস্থায়ী ২টির মধ্যে একটি হচ্ছে পল্লবী থানার ইস্টার্ন হাউজিং ওপেন স্পেস, অন্যটি হলো ভাষানটেক থানার ক্যান্টনমেন্ট বোর্ড বাজার।

মাসুক মিয়া বলেন, প্রতিটি হাটে সার্বক্ষণিক সিসিটিভি ক্যামেরার পাশাপাশি পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। ছিনতাই ও চাঁদাবাজিসহ যেকোনো ধরনের অপকর্ম রোধ করতে কঠোর নজরদারি করছে পুলিশ।

এদিকে কাফরুল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফারুকুল আলম জানান, পবিত্র ঈদুল আজহা খুব সন্নিকটে। এই ঈদে অনেক মানুষ ঢাকা ছাড়েন। তাই আমরা কাফরুল থানা-পুলিশ সবসময় নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সতর্ক অবস্থানে রয়েছি। আমরা বিভিন্ন স্থানে রাতের বেলা চেকপোস্ট করি, যাতে করে কেউ ছিনতাইয়ের কবলে না পড়েন।

বাংলাপেইজ/এএসএম

তিন বিভাগে বৃষ্টির আভাস, গরম কমার বিষয়ে যা জানা গেল

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশের তিন বিভাগে বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অফিস। তবে জলীয় বাষ্পের আধিক্যের কারণে গরম না কমার আভাস দেওয়া হয়েছে। ঢাকাসহ ২১ জেলায় মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে।

বুধবার সকাল ৯ টা থেকে পরবর্তী ৭২ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের ওপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরের অন্যত্র মাঝারি অবস্থায় রয়েছে। ঢাকা, টাঙ্গাইল, ফরিদপুর, মাদারীপুর, গোপালগঞ্জ, নারায়নগঞ্জ, রাজশাহী, পাবনা, চাপাইনবাবগঞ্জ, কুমিল্লা, চাঁদপুর, খাগড়াছড়ি, খুলনা, বাগেরহাট, সাতক্ষীরা, যশোর, চুয়াডাঙ্গা, কুষ্টিয়া, মাগুরা, বরিশাল, পটুয়াখালী এবং ভোলা জেলাসমূহের উপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারী ধরনের তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অব্যাহত থাকতে পারে।

মৌসুমে বায়ু মোটামুটি সক্রিয় থাকায় রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় এবং ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারী ধরনের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে। এছাড়া দেশের অন্যত্র আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে।

আবহাওয়াবিদ তরিফুল নেওয়াজ কবির জানিয়েছেন, বুধবার সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা কমলেও রাতের তাপমাত্রা অপরিবর্তিত থাকবে। তবে কাল বৃহস্পতিবার থেকে সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা সামান্য হ্রাস পেতে পারে এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। অতিরিক্ত আর্দ্রতার কারণে অস্বস্তি অব্যাহত থাকতে পারে। ছাড়াও চলমান তাপপ্রবাহ অব্যাহত থাকতে পারে বলে জানিয়েছেন তিনি।

এদিকে মঙ্গলবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল রাজশাহীতে ৩৮.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঢাকায় ছিল ৩৬.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এছাড়াও ঢাক, রাজশাহী ও বরিশাল বিভাগের কোথাও বৃষ্টি হয়নি।

বাংলাপেইজ/এএসএম

চট্টগ্রামে ঝুট গুদামের আগুন নিয়ন্ত্রণে

নিজস্ব প্রতিবেদক: চট্টগ্রাম নগরের উত্তর কাট্টলী এলাকার একটি ঝুটের গুদামের আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে। ফায়ার সার্ভিসের ছয়টি ইউনিট প্রায় দুই ঘণ্টা চেষ্টা করে বুধবার দুপুর ১২টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়।

এর আগে, সকাল ১০টার দিকে সিটি গেট মোস্তফা হাকিম ডিগ্রি কলেজের পাশের একটি গুদামে এ অগ্নিকাণ্ড ঘটে। আগুনে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

চট্টগ্রাম ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ আবদুল্লাহ জানান, সকালে উত্তর কাট্টলী এলাকার একটি গার্মেন্টসের পাশে থাকা ঝুট গুদামে আগুন লাগে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আমাদের ছয়টি ইউনিট গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। আগুনে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। এখনো আগুন নির্বাপনের কাজ চলছে।

তিনি আরো বলেন, আগুনের সূত্রপাত কীভাবে হয়েছে তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। আগুন পুরোপুরি নির্বাপনের পর ক্ষয়ক্ষতি ও আগুনের সূত্রপাত সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যাবে।

বাংলাপেইজ/এএসএম

বাড়তি ভাড়া আদায় করলে ব্যবস্থা নেবে পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক: কোনো পরিবহন ঈদযাত্রাকে কেন্দ্র করে বাড়তি ভাড়া আদায় করলে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার (ট্রাফিক) মুনিবুর রহমান।

বুধবার (১২ জুন) দুপুরে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ হুঁশিয়ারি জানান তিনি।

মুনিবুর রহমান বলেন, ঈদের ছুটি শুরুর আগে বিশেষ করে এক থেকে দুই দিন আগে সড়কে চাপ বাড়ে। তখন অধিকাংশ শ্রমিকরা ঢাকা ছাড়ে। তাদের মধ্যে সব থেকে বেশি থাকেন পোশাক শ্রমিকরা। তারও ঈদের এক থেকে দুই দিন আগে বাড়িতে যেতে চান। আর ঈদযাত্রার ট্রিপ নিয়ে যেসব গাড়ি ঢাকা ছেড়ে যায় তারা আবার সঠিক সময়ে ফিরে আসতে পারে না। আর এই সুযোগটা নেয় লোকাল বাসগুলো। শ্রমিকরা অনেকটা জোর-জবরদস্তি করে এসব লোকাল বাসে করে গ্রামে যায়।

প্রতিবছর ঈদযাত্রায় বাড়তি ভাড়া আদায় করা হয়, এ বিষয়ে পুলিশের কোনো উদ্যোগ আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, প্রতিটি বাস টার্মিনালে সার্ভিলেন্স টিম আছে। সার্ভিলেন্স টিম কিন্তু বিভিন্ন সংস্থার সমন্বয়ে হয়। সেখানে পুলিশের প্রতিনিধি, বিআরটিএ-এর প্রতিনিধি, সিটি কর্পোরেশনের প্রতিনিধি ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট থাকেন। ভাড়ার তালিকা অনুযায়ী তা আদায় হচ্ছে কিনা, ভাড়া দুই থেকে তিনগুণ বেশি আদায় করা হচ্ছে কিনা অথবা বাড়তি ভাড়া নেওয়া হচ্ছে কিনা, এগুলো দেখভালের জন্য কিন্তু সার্ভিলেন্স টিম আছে।

পাশাপাশি ভ্রাম্যমাণ আদালত থাকে। অযাচিতভাবে ভাড়া আদায় করা হয় এমন কোনো অভিযোগ এলে সেখানে কিন্তু কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নেয়। বাড়তি ভাড়া নিয়ে যদি নিয়মের ব্যত্যয় ঘটানো হয় তবে সার্ভিলেন্স টিম আছে তারা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে। কোনো পরিবহন ঈদযাত্রাকে কেন্দ্র করে বাড়তি ভাড়া আদায় করলে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

লোকাল বাসগুলো যাত্রী নিয়ে ঈদের সময় ঢাকার বাইরে যায় এ বিষয়ে পুলিশ ব্যবস্থা নেবে কিনা জানতে চাইলে বলেন, অনেক সময় তাদের আটকানো যায় না। কিন্তু আটকানো না গেলেও আমরা তাদের বিরুদ্ধে ভিডিও মামলা করতে পারব। পরে যেন তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া যায়। আমরা যদি তাদের রুট পারমিট ও ফিটনেসবিহীন গাড়ি শনাক্ত করতে পারি আইন অনুযায়ী যে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা সেই ব্যবস্থাও নিতে পারব।

বাংলাপেইজ/এএসএম

৩৪ বল ব্যাট করেই জিতল অস্ট্রেলিয়া

ক্রীড়া প্রতিবেদক: ম্যাচটা শেষ করতে অস্ট্রেলিয়া মোটেই সময় নেয়নি। ‘বি’ গ্রুপের ম্যাচে নামিবিয়াকে হারাতে তারা খেলেছে মোটে ৩৪ বল। ৫ ওভার ৪ বলেই নামিবিয়ার দেয়া ৭৩ রানের টার্গেটে চলে যায় অজিরা। ৯ উইকেট হাতে রেখে জিতেছে ২০২১ আসরের চ্যাম্পিয়নরা। এই জয়ের পর স্কটল্যান্ডকে টপকে গ্রুপে সবার ওপরে উঠে এসেছে মিচেল মার্শের দল। সেই সঙ্গে দ্বিতীয় দল হিসেবে নিশ্চিত করেছে সুপার এইট পর্ব।

ছোট পুঁজির সামনে আগ্রাসী মেজাজেই খেলেছে অস্ট্রেলিয়া। নেমেছেন তিন ব্যাটার। প্রত্যেকেই ব্যাট করেছেন ২০০ বা তার বেশি স্ট্রাইকরেটে। ডেভিড ওয়ার্নার করেছেন ৮ বলে ২০। তার স্ট্রাইকরেট ২৫০। ডেভিড উইসার বলে উড়িয়ে মারতে গিয়ে আউট হয়েছেন তিনি। এরপর বাকি কাজ সেরেছেন ট্রাভিস হেড এবং অধিনায়ক মিচেল মার্শ। হেড করেছেন ১৭ বলে ৩৪, আর মার্শের ৯ বলে এসেছে ১৮ রান। দুজনেরই স্ট্রাইকরেট ২০০।

নামিবিয়ার বোলারদের ওপর কেমন ঝড় গিয়েছে, তা টের পাওয়া যায় বোলারদের ইকোনমিতে চোখ রাখলে। অধিনায়ক গেরহার্ড এরাসমাস এক ওভারে দিয়েছেন ৬ রান। সেটাই সর্বনিম্ন। ডেভিড উইসা এক ওভারে দিয়েছেন ১৫ রান। বেন সিকোঙ্গো দিয়েছেন ১৯ রান। রুবেন ট্রাম্পেলম্যানের ২ ওভারে এসেছে ১৯ রান। সবমিলিয়ে, নামিবিয়ার জন্য রাতটা বিভীষিকারই ছিল।

এর আগে ব্যাট হাতেও সুবিধা করতে পারেনি নামিবিয়া। অধিনায়ক গেরহার্ড এরাসমাস একা চালিয়েছেন লড়াই। সঙ্গী হিসেবে কাউকেই পাননি পুরোটা সময় জুড়ে। পুরো দল যখন অস্ট্রেলিয়ার বোলিং লাইনআপের সামনে খাবি খেয়েছে, তখন নামিবিয়া অধিনায়ক খেলেলেন একা হাতেই। ৪৩ বলে ৪ চার এবং ১ ছক্কা হাঁকিয়ে করেছেন ৩৬ রান। নবম উইকেটের যখন পতন হয়, তখন দলীয় সংগ্রহের অর্ধেকটাই ছিল এরাসমাসের।

শেষ উইকেটে নামিবিয়া আর কোনো রানই যোগ করতে পারেনি। ৭২ রানেই থামে তাদের ইনিংস। অ্যাডাম জাম্পার ৪ আর জশ হ্যাজেলউড-মার্কাস স্টয়নিসের জোড়া উইকেট শিকারের দিনে অস্ট্রেলিয়ার কাছে রীতিমত নাস্তানাবুদ আফ্রিকান দেশটি। পুরো দলের হয়ে এদিন এরাসমাসের বাইরে ডাবল ডিজিটে গিয়েছেন কেবল ওপেনার মিচেল ভ্যান লিনগেন। ১০ বলে করেছেন ১০ রান।

শুরুর ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছেন প্যাট কামিন্স এবং জশ হ্যাজেলউড। হ্যাজেলউডের শিকার লিনগেন এবং নিকোলাস ডেভিস। আর জেই ফ্রাইলিংকে ফিরিয়েছেন প্যাট কামিন্স। ১৫ রানেই নেই তিন উইকেট। নামিবিয়ার বিপর্যয়ের আভাস মিলেছিল তখনই। এরপরই তাতে যোগ দেন অ্যাডাম জাম্পা। নাথান এলিস এক উইকেট নিয়েছেন বটে, তবে জাম্পা একাই নাস্তানাবুদ করেছেন নামিবিয়ার মিডল অর্ডার।

নবম উইকেটে এরাসমাস আর ব্রাসেল মিলে যোগ করেছেন ২৯ রান। এটাই নামিবিয়ার স্কোর টেনে নিয়ে গেল ৭২ পর্যন্ত। যদিও তাতে ব্রাসেলের অবদান মোটে ২ রান। চার উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হয়েছেন ও্যাডাম জাম্পা।

বাংলাপেইজ/এএসএম

অর্থ আত্মসাৎ ও পাচারের অভিযোগ: ড. ইউনূসসহ ১৪ জনের বিচার শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক: অর্থ আত্মসাৎ ও পাচারের অভিযোগে করা মামলায় নোবেলজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূসসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত। একই সঙ্গে সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য আগামী ১৫ জুলাই দিন ধার্য করেছেন আদালত।

বুধবার ঢাকার বিশেষ জজ আদালত ৪-এর বিচারক সৈয়দ আরাফাত হোসেন এ আদেশ দেন।

দদুকের পক্ষে প্রিসিকিউটর মোশাররফ হোসেন কাজল তাদের বিরুদ্ধে চার্জ পড়ে শুনালে আসামিরা নিজেদের নির্দোষ দাবি করে ন্যায়বিচার চান। এর পর আদালত তাদের বিরুদ্ধে চার্জগঠনের আদেশ দেন। এ মামলার অন্য আসামিরা হলেন— গ্রামীণ টেলিকমের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. নাজমুল ইসলাম, পরিচালক ও সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আশরাফুল হাসান, পরিচালক পারভীন মাহমুদ, নাজনীন সুলতানা, মো. শাহজাহান, নূরজাহান বেগম ও পরিচালক এসএম হাজ্জাতুল ইসলাম লতিফী, অ্যাডভোকেট মো. ইউসুফ আলী, অ্যাডভোকেট জাফরুল হাসান শরীফ, গ্রামীণ টেলিকম শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি মো. কামরুজ্জামান, সাধারণ সম্পাদক ফিরোজ মাহমুদ হাসান ও প্রতিনিধি মো. মাইনুল ইসলাম, দপ্তর সম্পাদক কামরুল ইসলাম।

এর আগে গত ২ জুন ২৫ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগের মামলায় ড. ইউনূসসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন শুনানি শেষ হয়। পরে আদালত এ বিষয়ে আদেশের জন্য ১২ জুন দিন ধার্য করেন।

২ জুন আদালতে ঢুকে এজলাসের বেঞ্চে বসেন ড. ইউনূস। এরপর আদালত থেকে ড. ইউনূস ছাড়া বাকি আসামিদের ডগে (কাঠগড়া) যেতে বলা হয়। ড. ইউনূস সবার সঙ্গে লোহা দিয়ে ঘেরা কাঠগড়ায় স্বেচ্ছায় গিয়ে দাঁড়ান। সেখানে তিনি তিন মিনিট দাঁড়িয়ে ছিলেন। এরপর বিচারক সবাইকে কাঠগড়া থেকে বের হতে বললে ড. ইউনূস কাঠগড়া থেকে বের হন।

কাঠগড়া থেকে বের হয়ে ড. ইউনূস বলেন, ‘দুটো নোবেল পুরস্কার দেওয়া হয়েছিল। একটা আমার নামে, আরেকটা গ্রামীণ ব্যাংকের নামে। পৃথিবীর ইতিহাসে কোনো নজির নেই যে, এক নোবেল বিজয়ীর বিরুদ্ধে আরেক নোবেল বিজয়ী মামলা করেছে, দুদকে হাজির হয়েছে। এটা আমাদের কপালে হয়েছে, এটা অভিশাপের একটা অংশ। এই অভিশাপ আমরা বহন করে যাচ্ছি।’

তিনি বলেন, ‘আমাকে গ্রামীণ ব্যাংক থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে। আমার বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি হয়েছে। কোনো নিস্তার নেই, একটার পর একটা চলছে। অভিশপ্ত জীবনের একটা বড় পর্যায়ে পৌঁছে গেছি।’

বাংলাপেইজ/এএসএম

মধ্যনগরের সাতুর বাজারে সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন

ধর্মপাশা( সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জের নবগঠিত মধ্যনগর উপজেলার বংশীকুন্ডা দক্ষিণ ইউনিয়নের সাতুর বাজারে উপজেলা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নির্বাচনে পরাজিত প্রার্থীর অনুসারীদের সন্ত্রাসী হামলার শিকার বিজয়ী প্রার্থীর অনুসারীরা সুবিচার চেয়ে মানববন্ধন করেছে।

মধ্যনগর উপজেলা সদরে মঙ্গলবার দুপুরে শহীদ মিনারের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

জানা যায়, গত ৫ জুন অনুষ্ঠিত নবগঠিত মধ্যনগর উপজেলায় প্রথমবারের মতো উপজেলা নির্বাচনে আব্দুর রাজ্জাক ভূঁইয়া মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে বিজয়ী হন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হন কাপপিরিচ প্রতীকের প্রার্থী মো.সাইদুর রহমান। বিজয়ী প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাক ভূঁইয়া ও নিকটতম পরাজিত প্রার্থী মো.সাইদুর রহমান দুজনই বংশীকুন্ডা দক্ষিণ ইউনিয়নের দাতিয়াপাড়া গ্রামের বাসিন্দা। গত ৭ জুন শুক্রবার বিকালে সাতুর নতুন বাজারের রাস্তায় বিজয়ী প্রার্থীর অনুসারীদের উপর অতর্কিত হামলা করে পরাজিত প্রার্থীর অনুসারীরা। খবর পেয়ে দুপক্ষের লোকজন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে ব্যাপক রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়। এসময় বেশ কয়েকজন গুরুতর আহত অবস্থায় বিভিন্ন মেডিকেলে চিকিৎসাধীন আছে।

উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা জহিরুল হক এর সভাপতিত্বে ও যুবলীগের সভাপতি মোস্তাক আহমেদের পরিচালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, নবনির্বাচিত মধ্যনগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক ভূইয়া, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বংশীকুন্ডা দক্ষিণ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আজিম মাহমুদ, যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কামাল হোসেন, শ্রমিকলীগের সহসভাপতি শাহআলম প্রমুখ।

নবনির্বাচিত উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন, সঠিক তদন্তের মাধ্যমে এ সন্ত্রাসী হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের কথা বলেন। মধ্যনগর উপজেলাকে শান্তিপ্রিয় রাখার আহবান জানান ও সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

বাংলাপেইজ/এএসএম

জামালগঞ্জে ৬৩টি গৃহহীন পরিবারকে ঘরের চাবি প্রদান

হাবিব রহমান, সুনামগঞ্জ: সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জে ভূমি সেবা সপ্তাহ উপলক্ষে আশ্রয়ন-২ প্রকল্পের ৫ম পর্যায়ের ২য় ধাপের ৬৩টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার পেলো জমি ও ঘর। মঙ্গলবার সকালে উপজেলা সম্মেলন কক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধনের পর তাঁর পক্ষ থেকে সুবিধাভোগী পরিবারের সদস্যদের মাঝে ইউএনও মুশফিকীন নূরের সঞ্চালনায় জমির দলিল ও ঘরের চাবি হস্তান্তর করেন সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক মো. রাশেদ ইকবাল চৌধুরী।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন-অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(রাজস্ব)সাব্বির আহমেদ আখঞ্জি, উপজেলা চেয়ারম্যান মো.রেজাউল করিম শামীম, উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান আকবর হোসেন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মারজানা ইসলাম শিবনা, উপজেলা আ.লীগের সভাপতি হাজী মোহাম্মদ আলী, যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক কাজী আশরাফ, উপজেলা কৃষি অফিসার মো. আলা উদ্দিন, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. এরশাদ হোসেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা শ্রীকান্ত তালুকদার, ফেনারবাঁক ইউপি চেয়ারম্যান কাজল চন্দ্র তালুকদার।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন-ভীমখালী ইউপিচেয়ারম্যান মোহাম্মদ আখতারুজ্জামান, বেহেলী ইউপি চেয়ারম্যান সুব্রত সামন্ত সরকার, সাচনা বাজার ইউপি চেয়ারম্যান মো. মাসুক মিয়া, উত্তর ইউপি চেয়ারম্যান সদর প্যানেল চেয়ারম্যান নূরুল হুদা, সমাজসেবা অফিসার সাব্বির সারোয়ার, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী রাম শাহা, মৎস্য অফিসার কামরুল ইসলাম, যুব উন্নয়ন অফিসার হাবিবুর রহমান, জামালগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি হাবিব রহমান প্রমূখ।

বাংলাপেইজ/এএসএম

তালির ভেনিসে মাদারীপুর জেলা কল্যাণ সমিতি ভেনিস ইতালি আত্মপ্রকাশ

মোহাম্মদ উল্লাহ সোহেল, ইউরোপ ব্যুরো প্রধান: ভেনিসে মাদারীপুর জেলা কল্যাণ সমিতি ভেনিস ইতালি আত্মপ্রকাশ করেন। ভেনিসে বসবাসরত মাদারীপুর জেলার সকলকে একত্রিত করার লক্ষ্যে চিতা মারঘেরার হল রুমে রানা শেখ এর পরিচালনায় শাহ আলম বয়াতির সভাপতিত্বে সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় জামাল খানকে সভাপতি ও ওবায়দুর রহমান লিটনকে সাধারণ সম্পাদক করে ৭১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা করেন। শাহ আলম বয়াতিকে প্রধান উপদেষ্টা করে ১৫ সদস্যের উপদেষ্টা পরিষদ গঠন করেন।

নবনির্বাচিত সভাপতি বলেন ভেনিসে বসবাসরত মাদারীপুর বাসি কেউ যদি মারা যায় তাহলে এ সংগঠনের মাধ্যমেই আমরা দেশে মরদেহ প্রেরণের ব্যবস্থা করব। কেউ যদি বিপদগ্রস্ত থাকে আমরা তার পাশে দাঁড়াবো।

এ সংগঠনের মাধ্যমে ভেনিসে বসবাসরত মাদারীপুর বাসীদের মধ্যে ভাতৃত্ববোধ সৃষ্টি হবে। আমরা সংঘটিত না থাকার কারণে বিভিন্ন জায়গায় আমাদেরকে ডাকা হতো না, আমরা মূল্যায়িত হতাম না। আজ যেহেতু আমরা সংঘটিত হয়েছি আমরা কমিউনিটিতে একটি অবস্থান তৈরি করতে পারব। নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক বলেন ভেনিসে বসবাসরত মাদারীপুর বাসিকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি এবং তারা যে দায়িত্ব আমাদেরকে অর্পণ করেছে সেই দায়িত্ব যেন সঠিকভাবে পালন করতে পারি। পরিশেষে উপস্থিত সকলকে নবগঠিত কমিটি মিষ্টিমুখ করানোর মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে।

বাংলাপেইজ/এএসএম

কোকাকোলার বিজ্ঞাপন নিয়ে মুখ খুললেন অভিনেতা জীবন

বিনোদন প্রতিবেদক: ফিলিস্তিন-ইসরায়েল ইস্যু নিয়ে সারাবিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশেও কোমলপানীয় ব্র্যান্ড কোকাকোলা বয়কটের ডাক দিয়েছে সাধারণ জনগণ। সম্প্রতি এই কোমলপানীয়র বাংলাদেশের একটি বিজ্ঞাপন নিয়ে তুমুল আলোচনা-সমালোচনার ঝড় উঠেছে নেটদুনিয়ায়।

বিজ্ঞাপনটিতে মডেল হিসেবে ছিলেন অভিনেতা শরাফ আহমেদ জীবন, শিমুল শর্মা, আব্দুল্লাহ আল সেন্টু প্রমুখ। কোকাকোলা বয়কটের পাশাপাশি বিজ্ঞাপনের অভিনয়শিল্পীদেরও বয়কটের হুমকি দিয়েছেন নেটিজেনরা। অবশেষে বয়কটের তোপের মুখে পড়ে বিজ্ঞাপনে কাজ করার বিষয়ে মুখ খুলেছেন অভিনেতা জীবন। সোমবার (১০ জুন) রাতে নিজের ফেসবুক আইডিতে একটি পোস্ট দিয়ে দাবি করেন, ইসরায়েলের পক্ষ নিয়ে কোনো কাজ করেননি তিনি।

পাঠকদের জন্য অভিনেতা জীবনের পোস্টটি তুলে ধরা হলো-

‘আমি একজন নির্মাতা এবং অভিনেতা হিসেবে সবার কাছে পরিচিত। বিগত দুই দশক ধরে আমি নির্মাণ ও অভিনয়ের সঙ্গে জড়িত। ব্যক্তিগত জীবনে আমি সবসময় মানবাধিকার বিরোধী যেকোনো আগ্রাসনের বিপক্ষে দাঁড়িয়েছি এবং আপনাদের অনুভূতি ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থেকেছি।

ব্যক্তিগত জীবনে সবসময় মানবাধিকার বিরোধী যেকোনো আগ্রাসনের বিপক্ষে দাঁড়িয়েছে এবং সবার অনুভূতি ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থেকেছে। বিজ্ঞাপনে এ অভিনেতা কোথাও ইসরায়েলের পক্ষ নেয়নি এবং তিনি কখনোই ইসরায়েলের পক্ষে না বলে দাবি করেছেন। পাশাপাশি তার হৃদয় সবসময় ন্যায়ের পক্ষে এবং মানবতার পাশে আছে, থাকবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন।

সম্প্রতি কোকা-কোলা বাংলাদেশ আমার সঙ্গে তাদের একটি বিজ্ঞাপন নির্মাণ এবং অভিনয় করার জন্য নিয়োগ করেছিল। আমি শুধুমাত্র তাদের দেওয়া তথ্য-উপাত্তই কাজটিতে তুলে ধরেছি। বিজ্ঞাপনটি প্রচার হবার পর থেকে আমি আপনাদের অনেক মিশ্র প্রতিক্রিয়া লক্ষ্য করছি এবং আপনাদের প্রতি সম্মান জানিয়ে আমি আবারও বলতে চাই কাজটি শুধুই আমার পেশাগত জীবনের একটি অংশমাত্র। এখানে আমি কোথাও ইসরায়েলের পক্ষ নিইনি এবং আমি কখনোই ইসরায়েলের পক্ষে নই। আমার হৃদয় সবসময় ন্যায়ের পক্ষে এবং মানবতার পাশে আছে, থাকবে।’

এদিকে পোস্ট দেওয়ার পর মন্তেব্যর ঝড় উঠেছে অভিনেতা জীবনের কমেন্টসবক্সে। সেখানে ভক্ত-অনুরাগী থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। একজন লিখেছেন, ‘ইসরায়েলের নাম দুবার লিখলেন কিন্তু ফিলিস্তিনের নাম একবারও বললেন না, ব্যাপার কী? ভাসুর, তাই নাম নিতে সমস্যা! যদি কাজটাকে ভুল মনে করেন তবে সোজাসুজি বলে ক্ষমা প্রার্থনা করুন। সম্মান বাড়বে বৈ কমবেনা।’ আরেক নেটিজেন লেখেন, ‘ইউ বয়কট পেশাগতর দোহায় দিয়ে পার পাবেনা। তুমি মানুষের অনুভূতিতে আঘাত করে পেশাগত দায়িত্ব পালন করার দৃঢ়তা দেখাতে পারলে মানুষ তোমাকে বয়কট ও করতে পারবে।’

বাংলাপেইজ/এএসএম